• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

Dhaka YES Conference 2013 ends (Bangla)

 ঢাকা ইয়েস সম্মেলন ২০১৩

 রাজনৈতিক অস্থিরতা ও দুর্নীতি দমনে রাজনৈতিক স্বদিচ্ছার অভাব দুর্নীতি নির্মূলের পথে প্রধান অন্তরায়

ঢাকা, ২২ আগস্ট, ২০১৩:দুর্জয় তারুণ্য দুর্নীতি রুখবেই’ এই প্রতিপাদ্যে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর অনুপ্রেরণায় গঠিত ইয়ুথ এনগেজমেন্ট অ্যান্ড সাপোর্ট (ইয়েস) এর ঢাকা ইয়েস সম্মেলন ২০১৩ আজ সমাপ্ত হয়েছে। সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী বিভিন্ন ইয়েস এর দলগত উপস্থাপনায় রাজনৈতিক অস্থিরতা ও দুর্নীতি দমনে রাজনৈতিক স্বদিচ্ছার অভাবকে দুর্নীতি নির্মূলের পথে প্রধান অন্তরায় হিসেবে চিহ্নিত করে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যকার পারস্পরিক দ্বন্দ্ব ও সংঘাত পরিহার করে রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার মাধ্যমে একটি গণতান্ত্রিক অগ্রযাত্রা নিশ্চিত করার দাবি জানান।

 

সম্মেলনের দ্বিতীয় দিনে নারী, সততা ও সমাজ; গণতন্ত্র, সুশাসন ও তরুণ সমাজ শীর্ষক দু’টি অধিবেশন অনুষ্ঠিত হয়। পাশাপাশি ইয়েস আন্দোলনের চ্যালেঞ্জ ও সম্ভাবনা বিষয়ে মুক্ত আলোচনা ও প্রশ্নোত্তর পর্বে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান উপস্থিত থেকে অংশগ্রহণকারীদের বিভিন্ন প্রশ্নের উত্তর দেন। দিনের প্রথম ভাগে এভারেস্ট জয়ী এম এ মুহিত দুর্নীতি দমনকে এভারেস্ট জয়ের সাথে তুলনা করে বলেন, “দুর্নীতি দমন একটি দুঃসাধ্য কাজ হলেও প্রচন্ড ইচ্ছা শক্তি ও সামাজিক আন্দোলনের মাধ্যমে দুর্নীতি দমন করে সুশাসিত ও সমৃদ্ধ দেশ গঠন সম্ভব।”

নারী, সততা ও সমাজ অধিবেশনে অংশগ্রহণ করে কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন বলেন, “নারী পুরুষের বৈষম্য ও দুর্নীতি দুর করতে হলে পরিবার থেকে প্রতিবাদ শুরু করতে হবে।” তিনি আরো বলেন, “স্বভাবগতভাবেই নারী সততা ও সমাজকে রক্ষা করে, সমান সুযোগ নিশ্চিত হলে নারীরা এ সমাজকে এগিয়ে নিতে আরো বলিষ্ঠ ভূমিকা রাখতে সমর্থ হবে।”

গণতন্ত্র, সুশাসন ও তরুণ সমাজ শীর্ষক অধিবেশনে ড. আকবর আলি খান বলেন, “সাংবিধানিক কাঠামোর দুর্বলতার কারণে বাংলাদেশের গণতন্ত্র বিকশিত হতে পারছে না। তিনি সংবিধানে ক্ষমতার ভারসাম্য প্রতিষ্ঠার ব্যাপারে সচেতন তরুণদের নতুন করে চিন্তা ভাবনার আহ্বান জানান।” অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম বলেন, “তারুণ্য তার অদম্য শক্তি দিয়ে সমাজের ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে পারে।” তিনি ইয়েস সদস্যদেরকে ইতিবাচক পরিবর্তন আনার এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় অগ্রণী ভূমিকা পালনের আহ্বান জানান।

এক ভিডিও বার্তার মাধ্যমে টিআইবি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী সকল ইয়েস সদস্যদের শুভেচ্ছা জানিয়ে দেশের ভবিষ্যত নেতৃত্ব গ্রহণকারী তরুণদেরকে মেধা ও মননের মাধ্যমে দেশ গঠনে কাজ করার আহ্বান জানান।

ঢাকা ইয়েস সম্মেলন ২০১৩’ এ ঢাকার বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪টি ইয়েস গ্রুপের তিন শতাধিক সদস্য এবং দেশের ৪৫টি অঞ্চল থেকে ৯০ জন ইয়েস প্রতিনিধি এ সম্মেলনে অংশগ্রহণ করেছে। দুই দিনব্যাপি এই সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী তরুণেরা স্ব স্ব অবস্থান থেকে সক্রিয়ভাবে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনে যুক্ত থাকার দৃঢ় প্রত্যয় ঘোষণা করে।