• header_en
  • header_bn

দুর্নীতি প্রতিরোধ, সুশাসন ও টেকসই উন্নয়ন অর্জনে তারুণ্যের ভূমিকা শীর্ষক পলিসি ব্রিফ

বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার এক-তৃতীয়াংশ তরুণ-তরুণী, যাদের সংখ্যা প্রায় ৫ কোটি ৩০ লাখ।  অর্থনীতি ও জনসংখ্যা বিষয়ক বিশেষজ্ঞদের মতে, বাংলাদেশের বর্তমান সময়টা হচ্ছে ‘ডেমোগ্রাফিক ডিভিডেন্ডের’, অর্থাৎ বর্তমানে বাংলাদেশের মোট জনসংখ্যার একটি বড় অংশ হচ্ছে কর্মক্ষম তরুণ সমাজ, যাদের শ্রমে ও মেধায় গড়ে উঠতে পারে উন্নত বাংলাদেশ। পরবর্তী প্রজন্ম কেমন বাংলাদেশ পাবে, সেটা বহুলাংশে নির্ভর করছে এই বিপুলসংখ্যক সম্ভাবনাময় তরুণদের ওপর। সহস্রাব্দ উন্নয়ন অভীষ্ট (এমডিজি) অর্জনে বাংলাদেশের সফলতার ধারাবাহিকতা ধরে রাখার অন্যতম উপায় হচ্ছে, তরুণ প্রজন্মকে টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট (এসডিজি) অর্জনে সম্পৃক্ত করা। টেকসই উন্নয়নের মূল লক্ষ্য হলো, ক্ষুধা, দারিদ্র্য নিরসন, ও বৈষম্য হ্রাস। অন্য কথায়, ১৭টি অভীষ্টের অধীনে ২৩২টি সুনির্দিষ্ট লক্ষ্য বাস্তবায়নের মাধ্যমে টেকসই উন্নয়ন নিশ্চিত করা। সচেতন, সক্রিয়, সৎ ও সাহসী তরুণেরাই পারবে সুশাসন নিশ্চিত করতে। তারা দেশকে দুর্নীতি মুক্ত করার মধ্য দিয়ে টেকসই উন্নয়নে অগ্রণী ভূমিকা পালন করতে পারে। 
পলিসি ব্রিফ এখানে