• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

CGA Executive Summary: হিসাব মহা নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়ে সুশাসনের চ্যালেঞ্জ: উত্তরণের উপায়

রিপোর্ট

হিসাব মহা নিয়ন্ত্রকের কার্যালয়ে সুশাসনের চ্যালেঞ্জ: উত্তরণের উপায়

একটি কার্যকর গণতান্ত্রিক ব্যবস্থা প্রতিষ্ঠা করার জন্য সরকারের স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা অত্যন্ত জরুরি। আর সরকারি দায়-দায়িত্ব সঠিকভাবে পালন করা হচ্ছে কিনা তা জনসম্মুখে প্রকাশের মাধ্যমে সরকারের জবাবদিহিতা নিশ্চিত করার জন্য হিসাবরক্ষণ ও আর্থিক বিবরণী গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। সরকারি সম্পদের ব্যবহার এবং সরকারি অর্থ রাজনৈতিক, অর্থনৈতিক ও সামাজিক ক্ষেত্রে ফলপ্রসূ বণ্টনের সিদ্ধান্ত সম্পর্কে হিসাবরক্ষণ ও আর্থিক বিবরণী একটি পূর্ণ চিত্র প্রদান করে।

হিসাবরক্ষণ সরকারি ব্যয়ের দুর্নীতি ও অপচয়ের বিরুদ্ধে নিয়ন্ত্রণ কৌশল এবং প্রহরী হিসেবে কাজ করে। বাংলাদেশে সরকারি প্রতিষ্ঠানের হিসাবরক্ষণের দায়িত্ব পালন করে হিসাব মহা নিয়ন্ত্রক (সিজিএ) অফিসযেকোনো সরকারি বিল বা অর্থছাড় অনুমোদন করার পূর্বে তাতে কোনো প্রশাসনিক, আর্থিক অনিয়ম ও দুর্নীতি হচ্ছে কিনা তা যাচাই করা এই অফিসের দায়িত্ব।

গত কয়েক বছরে সিজিএ অফিসে হিসাবরক্ষণ পদ্ধতির অটোমেশনসহ বিভিন্নরকম ইতিবাচক পরিবর্তন সাধিত হলেও এর কিছু সমস্যা এখনো বিদ্যমান। এর মধ্যে জনবলের অভাব, তাদের কর্মদক্ষতার অভাব, আইনগত সীমাবদ্ধতা, কার্যক্রমে মন্ত্রণালয়ের হস্তক্ষেপ, স্থাপনা ও লজিস্টিক সুবিধার অভাব উল্লেখযোগ্য। অন্যদিকে বিভিন্ন ধরনের বিল পাস করাতে ঘুষ, হয়রানি, বিল হারিয়ে ফেলা, হিসাবের প্রতিবেদন তৈরিতে বিলম্ব ইত্যাদি বিভিন্ন ধরনের অব্যবস্থাপনা ও দুর্নীতি বিশেষভাবে উল্লেখযোগ্য।

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) টেকসই অর্থনৈতিক উন্নয়নের লক্ষ্যে দুর্নীতি রোধ এবং স্বচ্ছতা ও জবাবদিহি নিশ্চিতকরণের মাধ্যমে দেশে সুশাসন প্রতিষ্ঠার জন্য প্রতিষ্ঠালগ্ন থেকেই বিভিন্ন ধরনের গবেষণার ভিত্তিতে সচেতনতামূলক প্রচারণা করে আসছে। এর ধারাবাহিকতায় টিআইবি ২০০৩ সালে মহা হিসাব নিরীক্ষক ও নিয়ন্ত্রকের (সিএজি) কার্যালয়ের ওপরে একটি তথ্যানুসন্ধান প্রতিবেদন প্রণয়ন করে। এই প্রতিবেদনে সিজিএ কার্যালয়ের সমস্যাগুলো বিস্তারিত আলোচিত হয়নি। এই প্রেক্ষিতে সিজিএ কার্যালয়ের সমস্যা নিয়ে গবেষণার প্রয়োজনীয়তা দেখা দেয়। এই গবেষণার প্রধান উদ্দেশ্য সিজিএ কার্যালয়ে সুশাসনের সমস্যাসমূহ চিহ্নিত করা এবং তা থেকে উত্তরণের জন্য সুপারিশমালা প্রণয়ন করা। বিশেষ উদ্দেশ্য হচ্ছে (১) এই কার্যালয়ের নিয়মিত কার্যক্রম পরিচালনায় আইনগত, কাঠামোগত ও প্রাতিষ্ঠানিক দুর্বলতা চিহ্নিত করা, (২) এ কার্যালয়ে বিদ্যমান অনিয়ম-দুর্নীতির ধরন, প্রক্রিয়া, কারণ ও প্রভাব চিহ্নিত করা, ও (৩) এ কার্যালয় যেন স্বচ্ছতার সাথে কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারে তার জন্য সুপারিশ প্রদান করা।

পুরো রিপোর্ট