• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

অ্যাডভোকেট সুপ্রিয় চক্রবর্তী এর মৃত্যুতে শোকাহত টিআইবি

 
অ্যাডভোকেট সুপ্রিয় চক্রবর্তী এর মৃত্যুতে শোকাহত টিআইবি
 
ঢাকা ৩০ জুলাই ২০১৯: বিশিষ্ট সাংস্কৃতিক সংগঠক, আয়কর আইনজীবি ও ক্রীড়া সংগঠক অ্যাডভোকেট সুপ্রিয় চক্রবর্তী এর মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছে ট্রন্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। গত ২৯ জুলাই ২০১৯ ঢাকার বারডেম হাসপাতালে চিকিৎসারত অবস্থায় তিনি শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭৫ বছর। 
টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এক শোকবার্তায় বলেন, “টিআইবির বোর্ড অব ট্রাস্টিজ, সাধারণ পর্ষদ, ম্যানেজমেন্ট, দেশের ৪৫টি এলাকার সনাক, স্বজন, ইয়েস, ইয়েস ফ্রেন্ডস, ঢাকা ইয়েস, ওয়াইপ্যাক এর সদস্যসহ টিআইবি’র সকল কর্মীর পক্ষ থেকে আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি ও তাঁর শোকসন্তপ্ত পরিবারকে জানাচ্ছি গভীর সমবেদনা।” 
সুপ্রিয় চক্রবর্তী টিআইবি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজ-এর চেয়ারপারসন ও তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সাবেক উপদেষ্টা অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল এর স্বামী ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি এক মেয়ে দিয়া সুদেষ্ণা চক্রবর্তীসহ বহু আত্মীয়-স্বজন ও গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। জীবদ্দশায় গবেষণার জন্য তিনি টাঙ্গাইলের কুমুদিনী হাসপাতাল দাতব্য চিকিৎসালয়ে নিজের মরদেহ এবং সন্ধানী-তে তার চক্ষু দান করে গেছেন।
সুপ্রিয় চক্রবর্তী ১৯৪৪ সালের ২৫ ডিসেম্বর সিলেটে জন্মগ্রহণ করেন। আইন পেশার পাশাপাশি সমাজের নানা শাখায় তার বিচরণ ছিল। তিনি মুক্তিযুদ্ধে সক্রিয়ভাবে অংশগ্রহণ করেন। পরবর্তীতে শিক্ষক হিসেবে কর্মজীবন শুরু করে সুপ্রিয় চক্রবর্তী একাধারে ক্রীড়া সংঘটক ও সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব হিসেবে সুনামের সাথে জীবন অতিবাহিত করেন। কর্মজীবনে তিনি সিলেট কর আইনজীবী সমিতি, সিলেট ক্রিকেট ডেভেলপমেন্ট কমিটি ও সিলেট সম্মিলিত নাট্য পরিষদের সভাপতির দায়িত্ব ছাড়াও রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ সিলেটের সহ-সভাপতির দায়িত্বে ছিলেন। এছাড়া বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের সাথে সম্পৃক্ততার পাশাপাশি একটি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকতায় যুক্ত ছিলেন তিনি।