• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

পার্লামেন্টওয়াচ’ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদনের উপর প্রকাশিত সংবাদ বিষয়ে টিআইবি’র ব্যাখ্যা

১৭ মে টিআইবি কর্তৃক তার কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে প্রকাশিত ‘পার্লামেন্টওয়াচ’ শীর্ষক গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ ও তার প্রেক্ষিতে প্রশ্নোত্তর পর্বের আলোচনার সংবাদ বিস্তারিতভাবে গণমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে। তবে এক্ষেত্রে সম্ভাব্য বিভ্রান্তি নিরসনের জন্য টিআইবি নিম্নলিখিত দু’টি বিষয়ের প্রতি সংশ্লিষ্ট সকলের দৃষ্টি আকর্ষণ করছে।
১. সংসদে বিরোধী দলের আচরণ ‘পুতুল নাচের নাট্যশালা’ সম বিবেচিত হতে পারে, টিআইবি এমন বলেছিল, এখনো এটি মনে করেন কি-না - এই প্রশ্নের জবাবে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক বলেন, “যেই দলটি বিরোধী দল হিসেবে দাবি করছে, বা যাকে বিরোধী দল বলা হচ্ছে, তার আত্মপরিচয়ের সংকট রয়েছে, বা তার সঠিক ভূমিকা কী তা সম্পর্কে দলটির বিভ্রান্তি রয়েছে- টিআইবি দশম সংসদের শুরু থেকে এই ব্যাখ্যা দিয়ে এসেছে, এখনো তা-ই বলছে। এবারে এক্ষেত্রে নতুন মাত্রা যোগ হয়েছে এ কারণে, উক্ত দলের নেতারা তাঁদের বক্তব্যে এই অবস্থানেরই প্রতিফলন ঘটিয়েছেন। তাঁরা বলেছেন: “জনগণ আমাদের বিরোধী দল মনে করে না, মনে করবে কি করে, আমরা কথা বলতে পারি না; আমরা বিরোধী দলও না, সরকারি দলও না, এভাবে দেশ চলতে পারে না।” অর্থাৎ দলটির নিজের বক্তব্যেই টিআইবি’র বিশ্লেষণের প্রতিফলন ঘটেছে।
২. সংসদে প্রধান বিরোধী দল হিসেবে পরিচিত দলটির সভাপতির “মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ দূত” হিসেবে তাঁর গত চার বছরের ভূমকা বিশ্লেষণ প্রসঙ্গে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক বলেছেন, “বিশেষ দূত হিসেবে তাঁর সুনির্দিষ্ট দায়িত্ব ও কর্তব্য (টার্মস অব রেফারেন্স) সম্পর্কে কোনো সুস্পষ্ট তথ্য বা ধারণা নেই। এ সম্পর্কে কোনো সরকারি নির্দেশনা বা প্রজ্ঞাপন বা গেজেট আমরা কোথাও পাইনি।” উল্লেখ্য, এর অর্থ এই নয় যে তার নিয়োগ সংক্রান্ত কোনো গেজেট নেই। গেজেট প্রকাশিত হয়েছে এবং তার কপি টিআইবি সংগ্রহ করতে পেরেছে। এতে তিনি কী সুবিধা বা পদমর্যাদা পাবেন তার উল্লেখ রয়েছে, কিন্তু তাঁর দায়িত্ব সম্পর্কে কোনো উল্লেখ নেই।
 
গণমাধ্যম যোগাযোগ,
 
মোহাম্মদ জাহিদুল ইসলাম
সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার, আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন
মোবাইল: ০১৭১৪০৯২৮৬৪