• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

ডিইউএমসিএস-টিআইবি দুর্নীতিবিরোধী মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা ২০১৭ এর সমাপ্তি ঘোষণা; দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আইন সংশ্লিষ্টদের দুর্নীতিবিরোধী আইন সম্পর্কে গভীর জ্ঞান অর্জনের তাগিদ

সংবাদ বিজ্ঞপ্তি

ডিইউএমসিএস-টিআইবি দুর্নীতিবিরোধী মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা ২০১৭ এর সমাপ্তি ঘোষণা
দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইয়ে আইন সংশ্লিষ্টদের দুর্নীতিবিরোধী আইন সম্পর্কে গভীর জ্ঞান অর্জনের তাগিদ

ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০১৭:
আইনসংশ্লিষ্ট পেশাজীবিদের দক্ষতা বৃদ্ধিতে বিদ্যমান দুর্নীতিবিরোধী আইন সঠিকভাবে অধ্যয়ন ও চর্চার বিকল্প নেই। দুর্নীতি সংশ্লিষ্টদের দ্রুত বিচারের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির ব্যবস্থা নিশ্চিত করা সম্ভব হলে তা দুর্নীতির বিস্তার রোধে সহায়ক হবে। এজন্য দুর্নীতি প্রতিরোধে সংকল্পবদ্ধ আইন পেশায় সংশ্লিষ্টদের জন্য দুর্নীতি চিহ্নিতকরণ থেকে অভিযোগ গঠন ও শাস্তি নিশ্চিত পর্যন্ত  প্রয়োজনীয় তথ্য-প্রমাণ সংগ্রহ ও যুক্তি-তর্ক উপস্থাপন, মামলা পরিচালনা ও গ্রহণে পেশাগত দক্ষতা, সক্ষমতা ও অবকাঠামোগত সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে। এছাড়া দুর্নীতির বিরুদ্ধে লড়াইকে বেগবান করার জন্য সরকারকে এমন পরিবেশ নিশ্চিত করতে হবে যেন দুর্নীতি প্রতিরোধে দায়িত্বপ্রাপ্ত সংস্থাসমূহ যেমন দুর্নীতি দমন কমিশন, বিচার বিভাগ, আইন-শৃংখলাবাহিনী যেন ভয়-ভীতির ঊর্ধ্বে উঠে দায়িত্ব পালন করতে পারেন। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় মুট কোর্ট সোসাইটি (ডিইউএমসিএস) এর যৌথ উদ্যোগে “ডিইউএমসিএস-টিআইবি দুর্নীতিবিরোধী মুট কোর্ট প্রতিযোগিতা ২০১৭”-এ অংশগ্রহণকারীবৃন্দ এ পর্যবেক্ষণসমূহ তুলে ধরেন। সারাদেশের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের প্রাণবন্ত যুক্তি-তর্ক উপস্থাপনার মধ্য দিয়ে আজ তিন দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত এ প্রতিযোগিতার সমাপ্তি ঘটে।
আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস ২০১৭ উপলক্ষে টিআইবি’র সপ্তাহব্যাপী অনুষ্ঠানমালার অংশ হিসেবে ৭ ডিসেম্বর আরম্ভ হওয়া প্রতিযোগিতাটির চূড়ান্ত পর্ব, পুরস্কার বিতরণী ও সমাপনী অনুষ্ঠান আজ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকার বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ৮ টি ও ঢাকার বাইরে ৮টি বিশ্ববিদ্যালয় থেকে সর্বমোট ১৬ টি দল ও ৪৮ জন প্রতিযোগী এ প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে। চূড়ান্ত পর্বে বিচারক হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ সুপ্রীম কোর্টের হাইকোর্ট বিভাগের মাননীয় বিচারপতি জনাব সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন, বিচারপতি মোঃ মিফতাহউদ্দীন চৌধুরী ও বিচারপতি সৈয়দ রিফাত আহমেদ। সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মাননীয় বিচারপতি জনাব সৈয়দ মোহাম্মদ দস্তগীর হোসেন। আরো উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদের চেয়ারপারসন অধ্যাপক ড. বোরহান উদ্দীন খান, টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান, উপদেষ্টা-নির্বাহী ব্যবস্থাপনা অধ্যাপক ড. সুমাইয়া খায়ের, ডিইউএমসিএস এর মডারেটর অধ্যাপক ড. মোঃ নাজমুজ্জামান ভূঁইয়া।
সমাপনী অনুষ্ঠানে ড. ইফতেখারুজ্জামান এ ধরণের ব্যতিক্রমধর্মী প্রতিযোগিতা আয়োজনে এগিয়ে আসায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদ ও ডিইউএমসিএস এর প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান।
দেশে বিদ্যমান বিভিন্ন আইনের দুর্নীতিবিরোধী আইন-সংশ্লিষ্ট বিষয় সম্পর্কে আইন বিভাগের শিক্ষার্থীদের জ্ঞান ও সচেতনতা বৃদ্ধির উদ্দেশ্যে আয়োজিত এ প্রতিযোগিতার চূড়ান্ত পর্বে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার গৌরব অর্জন করে রাজশাহীর বরেন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয় দল ও রানারআপ হিসেবে নির্বাচিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দল । এছাড়া স্পিরিট অব দ্যা মুট পুরস্কার অর্জন করে চট্টগ্রাম বিম্ববিদ্যালয় দল এবং বেস্ট মেমোরিয়াল নির্বাচিত হয় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দল থেকে। বেস্ট মুটারের পুরস্কার অর্জন করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দলের সানজানা হক মিফতাহ এবং বেস্ট রিসার্চারের পুরস্কারের জন্য মনোনীত হন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় দলের মোঃ জাহিদ-আল-মামুন।
এর আগে গত ৭ ডিসেম্বর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের আইন অনুষদে তিন দিনব্যাপী এ প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আখতারুজ্জামান।
গণমাধ্যম যোগাযোগ,
 
রিজওয়ান-উল-আলম
পরিচালক, আউটরিচ অ্যান্ড কমিউনিকেশন বিভাগ
মোবাইল: ০১৭১৩০৬৫০১২
ই-মেইল: This email address is being protected from spambots. You need JavaScript enabled to view it.