• header_en
  • header_bn

টিআইবি’র অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০১৬ ঘোষণা: সাংবাদিকদের দুর্নীতিবিরোধী অনুসন্ধানী প্রতিবেদন রচনা অব্যাহত রাখার আহ্বান টিআই চেয়ারপারসনের

ঢাকা, ১৬ অক্টোবর ২০১৬: দুর্নীতির বিরুদ্ধে একসাথে’ এই শ্লোগানকে প্রতিপাদ্য করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) বাংলাদেশে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনের বিশ বছর উদ্যাপন করছে। এ আয়োজনের অংশ হিসেবে আজ দুপুর ২ টায় টিআইবি’র ধানমন্ডিস্থ কার্যালয় এর মেঘমালা সম্মেলন কক্ষে ‘অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০১৬’ বিজয়ীদের নাম ঘোষণা এবং ‘গণমাধ্যম ও দুর্নীতি’ শীর্ষক এক আলোচনা অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়। অনুষ্ঠানে উপস্থিত সাংবাদিকদের দুর্নীতিবিরোধী অনুসন্ধানী প্রতিবেদন রচনা অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান টিআই চেয়ারপারসন।
এ বছর দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা প্রতিযোগিতায় প্রিন্ট মিডিয়া- স্থানীয় ক্যাটাগরীতে চাঁদপুরের স্থানীয় পত্রিকা দৈনিক ইলশে পাড় এর প্রতিবেদক রেজাউল করিম এবং প্রিন্ট মিডিয়া- জাতীয় ক্যাটাগরীতে বাংলামেইল টুয়েন্টিফোর ডট কম এর শাহেদ শফিক পুরস্কৃত হয়েছেন। ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া (প্রতিবেদন) ক্যাটাগরীতে যৌথভাবে পুরস্কৃত হয়েছেন এনটিভি’র সাংবাদিক সফিক শাহীন ও মাছরাঙা টেলিভিশনের সাংবাদিক বদরুদ্দোজা বাবু। ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া (প্রামাণ্য অনুষ্ঠান) ক্যাটাগরীতে যৌথভাবে বিজয়ী হয়েছেন যমুনা টেলিভিশনের সাংবাদিক মো. আলাউদ্দিন আহমেদ এবং একই টেলিভিশনের সাংবাদিক জি এম ফয়সাল আলম। এ প্রামাণ্য দু’টিতেই সাহসিকতার সাথে ভিডিওচিত্র ধারণ করায় যমুনা টেলিভিশনের ভিডিও চিত্রগ্রাহক মহসীন মুকুল, কাজী মোহাম্মাদ ইসমাইল ও গোলাম কিবরিয়াকে বিশেষ সম্মাননা প্রদান করা হয়। উল্লেখ্য ‘জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন’ বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় মানসম্মত প্রতিবেদন না পাওয়ায় এ বছর এ ক্যাটাগরীতে প্রিন্ট ও ইলেক্ট্রনিক মাধ্যমে কোন পুরস্কার প্রদান করা সম্ভব হয়নি। বিজয়ী সাংবাদিকদের সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও একলক্ষ টাকার চেক এবং তিনজন ভিডিও চিত্রগ্রাহককে একত্রে একলক্ষ টাকার চেক পুরস্কার হিসেবে প্রদান করা হয়।
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বার্লিন ভিত্তিক আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী সংস্থা ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল (টিআই) এর পরিচালনা পর্ষদ এর চেয়ারপারসন হোসে কার্লোস উগাস এবং সভাপতিত্ব করেন টিআইবি’র বোর্ড অব ট্রাস্টিজ এর চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল। অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। ‘গণমাধ্যম ও দুর্নীতি’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠানে মূখ্য আলোচক হিসেবে টিআই চেয়ারপারসন বলেন, “দুর্নীতি প্রতিরোধে গণমাধ্যম এক শক্তিশালী হাতিয়ার। সারাবিশে^ সাহসী অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার মাধ্যমেই বড় বড় দুর্নীতির চিত্র জনসম্মুখে এসেছে। দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনের সাথে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার নিবিড় সম্পর্ক রয়েছে।” তিনি আরো বলেন, “দুর্নীতিবাজরা অনেক শক্তিশালী তাই তাদের বিরুদ্ধে লড়াই অব্যাহত রাখতে অনুসন্ধানী সাংবাদিককে পর্যাপ্ত প্রশিক্ষণের মাধ্যমে কারিগরী বিষয়সহ বিশদভাবে জ্ঞান ও দক্ষতা অর্জন করতে হবে।”
বাংলাদেশে দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় পেশাদারী উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে ১৯৯৯ সাল থেকে প্রতিবছর টিআইবি এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে। এ বছর প্রিন্ট মিডিয়া জাতীয় ক্যাটগরীতে ২৫টি, প্রিন্ট মিডিয়া আঞ্চলিক ক্যাটগরীতে ৬টি, ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া (প্রতিবেদন) ক্যাটাগরীতে ২৩টি এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া (প্রামাণ্য অনুষ্ঠান) ক্যাটাগরীতে ৫টি প্রতিবেদন জমা পড়ে। উল্লেখ্য, প্রতিযোগিতায় ১ জানুয়ারি ২০১৫ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১৫ সময় পর্যন্ত প্রকাশিত বা প্রচারিত প্রতিবেদনগুলোই মূল্যায়িত হয়েছে। এ বছর টিআইবি’র ট্রাস্টি বোর্ড কর্তৃক নির্বাচিত বিচারক মন্ডলীর সদস্যরা হলেন: ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা বিভাগের অধ্যাপক ড. গীতিআরা নাসরিন, সাংবাদিক ও গণমাধ্যম গবেষক আফসান চৌধুরী এবং চ্যানেল আইয়ের তৃতীয়মাত্রা অনুষ্ঠানের সঞ্চালক জিল্লুর রহমান।
Media Contact