• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

ক্ষমতায়িত নারী, জাগ্রত বিবেক-দুর্নীতি রুখবেই- টিআইবির আহবান: আন্তর্জাতিক নারী দিবসে টিআইবির দুর্নীতিবিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

 

ঢাকা, ৮ মার্চ ২০১৬:ক্ষমতায়িত নারী, জাগ্রত বিবেক - দুর্নীতি রুখবেই’ এই প্রতিপাদ্য নিয়ে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল দুর্নীতিবিরোধী সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান। আজ ৮ মার্চ আন্তর্জাতিক নারী দিবস উপলক্ষ্যে ঢাকার ধানমন্ডির রবীন্দ্র সরোবর মুক্তমঞ্চে এটি অনুষ্ঠিত হয়। টিআইবির ইয়েস সদস্য, কর্মীবৃন্দ, সমমনা সংগঠনের প্রতিনিধিরা এতে অংশ নেন। মুক্তমঞ্চে সাধারণ দর্শকেরাও এতে স্বতঃস্ফূর্তভাবে অংশগ্রহণ করেন ও সুশাসিত বাংলাদেশের প্রত্যয় ব্যক্ত করেন।
বিকেল ৫টায় অনুষ্ঠান শুরু হয় জাতীয় সঙ্গীতের মধ্য দিয়ে। এরপর টিআইবির আউটরিচ ও কমিউনিকেশন বিভাগের পরিচালক রিজওয়ান-উল-আলম স্বাগত বক্তব্য রাখেন। অপরাজেয় বাংলাদেশের নাটক ‘কাজল কালো রাত’ এর পরিবেশনের মাধ্যমে শুরু হয় সাংস্কৃতিক আয়োজন।
বাংলাদেশের পক্ষে আন্তর্জাতিক সম্মাননা নিয়ে আসা নারী ক্রীড়াবিদদের সম্মাননা পর্ব শুরু হয় এরপর। দক্ষিণ এশীয় গেমসে স্বর্ণপদকজয়ী ভারোত্তোলক মাবিয়া আক্তার সীমান্ত এবং সাঁতারু মাহফুজা খাতুন শীলাকে সম্মাননা জানিয়ে ক্রেস্ট ও সম্মাননা পত্র তুলে দেন টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান। টিআইবির দুর্নীতিবিরোধী শপথে স্বাক্ষর করে একাত্মতা জানান তাঁরা।
সাংস্কৃতিক পর্বে ঢাকা ইয়েস সদস্য নিটোলের সঙ্গীত পরিবেশনার পর ঢাকা ইয়েস-এর বৃন্দআবৃত্তিতে জানানো হয় দুর্নীতির বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানোর আহবান। এসিড সারভাইভার্স ফাউন্ডেশনের সদস্যদের গানের দল ‘পঞ্চম সুর’ ও তার পর ইয়েস সদস্য হৃদয় ও মহীতোষ সঙ্গীত পরিবেশনা করেন। এরপর ছিল মানবাধিকার নাট্য পরিষদ, ঢাকা মহানগরের আয়োজনে নাটক। টিআইবির থিম সংয়ের সঙ্গে কোরিওগ্রাফির পর্ব শুরু হয় এরপর। এসব সাংস্কৃতিক আয়োজনে ছিল দুর্নীতিবিরোধী আন্দোলনে সামিল হওয়ার আহবার ও নারীর ক্ষমতায়নের অঙ্গীকার।
এরপর অনুষ্ঠানে আসেন কলসুন্দর ফুটবল দলের মেয়েরা। নেপালের এএফসি অনূর্ধ্ব-১৪ টুর্নামেন্টের আঞ্চলিক চ্যাম্পিয়নশিপে শিরোপা জয়ী বাংলাদেশ দলে খেলেছেন তাঁদের দশজন সদস্য। তাঁদের এ অর্জনের জন্য সম্মাননা জানানো হয়।
পল্লবী ডান্স একাডেমির নৃত্য পরিবেশনার পর আবার শুরু হয় গান। এ পর্বে সঙ্গী পরিবেশন করেন শিল্পী অনিমা মুক্তি গোমেজ ও এ সময়ের অন্যতম জনপ্রিয় শিল্পী কনা। মুক্তমঞ্চে দর্শকরা দারুণ উপভোগ করেন এ আয়োজন।
Media Contact