• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

Journalist orientation programme on Climate Finance Governance held (Bangla)

গণমাধ্যম কর্মীদের অংশগ্রহণে জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন বিষয়ক ওরিয়েন্টশন অনুষ্ঠিত
ঢাকা ২৫ নভেম্বর ২০১৪: জলবায়ু অর্থায়নে সততা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত করতে ধারাবাহিক কার্যক্রমের অংশ হিসেবে গণমাধ্যম কর্মীদের অংশগ্রহণে আজ এক ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচির আয়োজন করে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)। “জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন: বৈশ্বিক এবং জাতীয় প্রেক্ষিত” শীর্ষক ওরিয়েন্টশন কর্মসূচীতে দেশের বিভিন্ন গণমাধ্যমর প্রতিনিধিগণ অংশগ্রহণ করেন।
ওরিয়েন্টশন কর্মসূচীতে উক্ত বিষয়ের উপর উপস্থাপনা করেন কপ সম্মেলনে জলবায়ু অর্থায়ন বিষয়ে বাংলাদেশের প্রধান আলোচক এবং নর্থ-সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবেশ বিজ্ঞান বিভাগের অধ্যাপক ড. মিজান আর খান, ইষ্ট ওয়েষ্ট বিশ্ববিদ্যালয়ের অর্থনীতি বিভাগের অধ্যাপক ড. এ কে এনামুল হক, ফোরাম অফ ইনভায়রনমেন্টাল জার্নালিস্ট অব বাংলাদেশ (এফইজিবি) এর চেয়ারম্যান কামরুল ইসলাম চৌধুরী, এবং টিআইবি’র সিনিয়র প্রোগ্রাম ম্যানেজার এম. জাকির হোসেন খান।
ওরিয়েন্টেশন কর্মসূচীর উদ্বোধন করে টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন “জলবায়ু পরিবর্তন অভিযোজন ও উপশম সংক্রান্ত কার্যক্রমসমূহ পরিচালনায় সহায়তা করার জন্য উন্নত বিশ্বের দেশগুলো আগামী ২০২০ সালের মধ্যে প্রায় ১০০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার বরাদ্দে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে ইতোমধ্যে ট্রাস্ট ফান্ড গঠন করা হয়েছে। জলবায়ু তহবিল প্রবাহের সাথে সাথে তহবিল ব্যবহারে স্বচ্ছতার বিষয়টিও অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশে জলবায়ু তহবিলের দু’টি উৎস থেকে তহবিল ব্যবহারের প্রেক্ষিতে সুশীল সমাজের সংগঠনসমূহ এবং জলবায়ু পরির্বতনের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ জনগোষ্ঠীদের পরামর্শ ও অভিমত গ্রহণ অপরিহার্য।” তিনি আরো বলেন, স্বচ্ছতা নিশ্চিতে উন্নয়ন সহায়তা এবং জলবায়ু তহবিল পৃথক হিসাবের মাধ্যমে পরিচালনা করা উচিৎ।
জলবায়ু অর্থায়নের বৈশ্বিক প্রেক্ষিত এবং এক্ষেত্রে বাংলাদেশের করণীয় সম্মন্ধে বক্তাগন বলেন এ মুহুর্তে বিশ্বব্যাপী জলবায়ু অর্থায়নের সংজ্ঞা নির্ধারণ জরুরী হয়ে পড়েছে। বিশ্বব্যাপী জলবায়ু অর্থায়নের প্রকৃত সংজ্ঞা নির্ধারিত না হওয়ায় ধনী দেশগুলি অফিসিয়াল ডেভলপমেন্ট এ্যসিসটেন্ট(ওডিএ) কে জলবায়ু অর্থায়ন হিসাবে প্রদানের চেষ্টা শুরু করেছে যা জলবায়ু অর্থায়নের মূল নীতি ‘নতুন এবং অতিরিক্ত’ এর পরিপন্থি। গণমাধ্যম কর্মীদের প্রতি এ সম্পর্কিত অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসন নিশ্চিতে কাজ করার আহ্বান জানানো হয় ওরিয়েন্টশন প্রোগ্রামে। ‘জলবায়ু অর্থায়নে সুশাসনের সম্ভাবনা ও চ্যালেঞ্জে: বৈশ্বিক ও জাতীয় প্রেক্ষিত’ শীর্ষক উপস্থাপনায় বৈশ্বিক উৎস হতে উন্নত দেশগুলো কর্তৃক মাত্র ৮% তহবিল ছাড় এবং সবুজ জলবায়ু তহবিল হতে তহবিল সংগ্রহে বাংলাদেশের দ্রুত প্রস্তুতির ওপরও জোর দেওয়া হয়। 

Media Contact