• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

International Anti-Corruption Day (IACD) 2013: TIB demands independent, neutral and effective Anti-Corruption Commission (Bangla)

স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও কার্যকর দুর্নীতি দমন কমিশন এর দাবিতে আন্তর্জাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস পালন

ঢাকা, ৯ ডিসেম্বর ২০১৩: ৯ ডিসেম্বর জাতিসংঘ ঘোষিত আর্ন্তজাতিক দুর্নীতিবিরোধী দিবস উপলক্ষে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ‘চাই স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও কার্যকর দুর্নীতি দমন কমিশন’ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে প্রতিবছরের মত এবছরও বিভিন্ন কার্যক্রম পালন করেছে। দিবসটি উদ্‌যাপনের অংশ হিসেবে আজ সকালে ও রাজধানীর ব্র্যাক সেন্টার ইন্‌ মিলনায়তনে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা পুরস্কার ২০১৩ ঘোষণা প্রদান উপলক্ষে ও ‘সাম্প্রতিক প্রেক্ষাপটে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতার চ্যালেঞ্জ’ শীর্ষক এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এবছর প্রিন্ট মিডিয়া জাতীয় বিভাগে দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকার প্রাক্তন প্রধান প্রতিবেদক এবং বর্তমানে ঢাকা ট্রিবিউন এর বিশেষ প্রতিনিধি জুলফিকার আলী মানিক, প্রিন্ট মিডিয়া আঞ্চলিক বিভাগে খুলনা থেকে প্রকাশিত দৈনিক পূর্বাঞ্চল পত্রিকার প্রতিবেদক এইচ এম আলাউদ্দিন এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া বিভাগে ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে প্রচারিত প্রতিবেদনের জন্য এর বিশেষ প্রতিনিধি অপূর্ব আলাউদ্দিন (বর্তমানে যমুনা টেলিভিশনে কর্মরত) বিজয়ী হন এবং প্রতিবেদনটি সাহসিকতার সাথে ক্যামেরায় ধারণের জন্য ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনে কর্মরত মহসিন মুকুলকে বিশেষ সম্মাননা দেয়া হয়।
বিজয়ী সাংবাদিকদের সম্মাননাপত্র, ক্রেস্ট ও আশি হাজার টাকার চেক এবং ক্যামেরাপারসনের জন্য পঞ্চাশ হাজার টাকার সম্মানী দেয়া হয়। টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ সাংবাদিক এবিএম মুসা এবং সভাপতিত্ব করেন টিআইবি ট্রাস্টি বোর্ডের চেয়ারপারসন অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল।
মূখ্য আলোচক প্রবীণ সাংবাদিক এবিএম মুসা সংবাদকর্মীদের ঘটনার মূলোৎঘাটনের আহ্বান জানিয়ে বলেন, “কি ঘটেছে সেটা যেমন গুরুত্বপূর্ণ, তবে তার চেয়েও গুরুত্বপূর্ণ কেন ঘটেছে।” তিনি আরো বলেন, অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় জাতীয় সংবাদ থেকে মফস্বল সংবাদ অনেক বেশি এগিয়ে। মফস্বল সাংবাদিকরা বেশি মাত্রায় নির্যাতনের শিকার হন উল্লেখ করে তিনি তাদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়ার আহ্বান জানান।
. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, “সংবাদ কর্মীরা দুদকসহ নীতি নির্ধারনী বিভিন্ন বিষয়ে তথ্যানুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে সরকারের দৃষ্টিগোচর করলেও, সরকার অধিকাংশ ক্ষেত্রেই তাতে দৃষ্টিপাত করে না। সংশোধিত দুদক আইন ২০১৩ এর ক্ষেত্রেও তাই হয়েছে।”
সভাপতির বক্তব্যে অ্যাডভোকেট সুলতানা কামাল বলেন, “সাংবাদিকরা আছেন বলেই সমাজের অনেক অসঙ্গতির কথা আমরা জানতে পারি। এক্ষেত্রে সরকারের মধ্যে প্রতিক্রিয়া হয় কিন্তু যথাযথ পদক্ষেপ বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই গ্রহণ করেন না। তবে এক্ষেত্রে সরকারের সমর্থকদের দ্বারা গণমাধ্যম কর্মীরা প্রতিহিংসার শিকার হন। সরকারের কাছে আমাদের দাবি থাকবে সরকার যেন এ বিষয়ে যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণ করেন।”
প্রিন্ট মিডিয়া জাতীয় বিভাগে বিজয়ী সাংবাদিক জুলফিকার আলী মানিকের প্রতিবেদনটি দ্য ডেইলি স্টার পত্রিকায় ২০১২ সালের ১৪ অক্টোবর A Devil’s Design শিরোনামে প্রকাশিত হয়েছিল। কক্সবাজারের রামুতে বৌদ্ধ সম্প্রদায়ের উপর হামলা এবং ধর্মীয় সম্প্রীতি নষ্টের মৌলবাদী অপতৎপরতার পুঙ্খানুপুঙ্খ অনুসন্ধান করা হয়েছে এ প্রতিবেদনে। সোশাল নেটওয়ার্কিং ওয়েবসাইট ফেসবুকের মাধ্যমে ঘটনার সূত্রপাতে যে কারসাজির আশ্রয় নেয়া হয়েছিল সে ব্যাপারে প্রতিবেদনে বিস্তারিত তুলে ধরা হয়েছে। এ ঘটনার সাথে যে সংঘবদ্ধ চক্র জড়িত তাদের পরিচয় উদ্‌ঘাটন করার চেষ্টা করেছেন প্রতিবেদক। বিভিন্ন অপরাধকর্মে সোশাল মিডিয়াকে কিভাবে ব্যবহার করা হচ্ছে সে বিষয়ে ভাববার অবকাশ তৈরী করেছে এ প্রতিবেদনটি ।
আঞ্চলিক বিভাগে বিজয়ী হয়েছেন খুলনার সাংবাদিক এইচ এম আলাউদ্দিন। তিনি বর্তমানে দৈনিক পূর্বাঞ্চল পত্রিকায় স্টাফ রিপোর্টার হিসেবে কর্মরত। তাঁর প্রতিবেদনটি দৈনিক পূর্বাঞ্চল পত্রিকায় ২০১২ সালের ৩ মার্চ থেকে ২৫ মার্চ পর্যন্ত “শহরতলীতে ভূমিদস্যুদের উত্থান” শিরোনামে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হয়। উন্নয়নের ছোঁয়ার সাথে সাথে খুলনা শহরে ভূমিদস্যূদের অপতৎপরতা বৃদ্ধি এবং সেই সাথে দুর্নীতির চিত্র ফুঁটে উঠেছে প্রতিবেদনটিতে। এই সিরিজ প্রতিবেদনে শ্রমিক, চাকুরীজীবী বা অন্য পেশার মাধ্যমে কোটিপতি হওয়ার তথ্য উদ্‌ঘাটিত হয়েছে। যার মধ্যে রয়েছে সরকারি সংশ্লিষ্ট দপ্তরের দুর্নীতিবাজদের যোগসাজশে জাল দলিল তৈরী, একই জমি একাধিকবার বিক্রয়, অন্যের জমি ভূয়া মালিক সেজে দখল, ভূয়া পরিচয়পত্র তৈরী, সরকারি রাস্তা-খাস জমি এবং খালের অবৈধ দখল ইত্যাদি। প্রতিবেদনের শেষাংশে ভুক্তভোগী ও সুশীল সমাজের পক্ষ থেকে সরকার ও সংশ্লিষ্ট দপ্তরের নজরদারি বৃদ্ধি এবং দুর্নীতির সাথে জড়িতদের শাস্তির দাবি করা হয়েছে ।
ইলেক্ট্রনিক মিডিয়া বিভাগে বিজয়ী হয়েছেন ইনডিপেনডেন্ট টেলিভিশনের প্রাক্তন বিশেষ প্রতিনিধি অপূর্ব আলাউদ্দিন (মোঃ আলাউদ্দিন আহম্মেদ)। তাঁর প্রতিবেদনটির শিরোনাম ‘লাল হলেই রক্ত হয় না’। প্রতিবেদনটিতে স্বেচ্ছায় রক্তদান কর্মসূচির রক্ত বিক্রয় এবং পরীক্ষা বিহীন রক্ত ব্যবসার চিত্র তুলে ধরা হয়েছে। বিশেষ করে মাদকসেবীদের রক্ত বিক্রির প্রবণতা, দেশের সরকারি হাসপাতালগুলোর আশে-পাশে নামে-বেনামে গড়ে ওঠা ব্লাড ব্যাংকের হাসপাতাল কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে মাদকসেবীদের সখ্যতা তথা দুর্নীতির চিত্র উঠে এসেছে এ প্রতিবেদনে। অনুসন্ধানে আরোও বেরিয়ে এসেছে রক্তের পরিমান বাড়াতে অসাধু ব্যবসায়ীরা নানা অসাধু উপায় অবলম্বন করছে এমনকি লবণ-পানিও মেশাচ্ছে রক্তের সাথে। মূমুর্ষ রোগীর জীবন বাঁচাতে প্রয়োজনীয় এ উপাদানের ক্রয়-বিক্রয়ে সরকারের নজরদারির পাশাপাশি সচেতনতা বাড়ানোর ওপর গুরুত্বারোপ করা হয়েছে প্রতিবেদনটিতে। একই প্রতিবেদনে ক্যামেরায় সাহসি সহযোগিতার জন্য মহসিন মুকুল পুরস্কৃত হয়েছেন।
বাংলাদেশে দুর্নীতি বিষয়ক অনুসন্ধানী সাংবাদিকতায় পেশাদারী উৎকর্ষ সাধনের লক্ষ্যে ১৯৯৯ সাল থেকে প্রতি বছর টিআইবি এ পুরস্কার প্রদান করে আসছে। এবার তিনটি বিভাগে সর্বমোট ৫৩ জন সাংবাদিক প্রতিবেদন জমা দেন। যার মধ্যে প্রিন্ট মিডিয়া জাতীয় বিভাগে ৩১ জন, প্রিন্ট মিডিয়া আঞ্চলিক বিভাগে ১১জন এবং ইলেক্ট্রনিক মিডিয়ায় ১১ জন সাংবাদিক প্রতিবেদন প্রেরণ করেন। মুলত ১ জানুয়ারী ২০১২ থেকে ৩১ ডিসেম্বর ২০১২ সময় পর্যন্ত প্রকাশিত বা প্রচারিত সংবাদগুলোই কেবল মূল্যায়ন করা হয়েছে।
দিনের দ্বিতীয় ভাগে স্বাধীন, নিরপেক্ষ ও কার্যকর দুর্নীতি দমন কমিশন এর দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারুকলা অনুষদের সম্মুখ সড়কে এক মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। মানববন্ধনে অংশ নিয়ে বিভিন্ন শ্রেণিপেশার মানুষ অতি সম্প্রতি জাতীয় সংসদে পাশকৃত দুর্নীতি দমন কমিশন (সংশোধন) আইন, ২০১৩ বাতিল করে দুদককে একটি কার্যকর ও সক্রিয় প্রতিষ্ঠান হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার জোর দাবি জানান।
মানববন্ধন শেষে ‘দুর্নীতিবিরোধী কার্টুন প্রতিযোগিতা পুরস্কার ২০১৩’ ঘোষণা এবং কার্টুন প্রদর্শনীর উদ্বোধন করা হয়। এতে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.....আরেফিন সিদ্দিক; অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন চারুকলা অনুষদের ডিন অধ্যাপক আবুল বারাক আলভি এবং কাটুর্নিস্ট আহসান হাবীব। সভাপতিত্ব করেন টিআইবি ট্রাস্টি বোর্ডের সদস্য অধ্যাপক সৈয়দ মনজুরুল ইসলাম। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন টিআইবি’র নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান।
অনুষ্ঠানে দুর্নীতিবিরোধী কার্টুন প্রতিযোগিতা ২০১৩ এর বিজয়ী ও বিশেষ মনোনয়নপ্রাপ্ত কার্টুনিস্টদের মাঝে পুরস্কার ও সনদ বিতরণ করা হয়। এবারের প্রতিযোগিতায় ‘ক’ বিভাগে (১৩-১৮ বছর) ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকার করেছে যথাক্রমে মমি-তু-উর রহমান, মো. নাইমুর রহমান এবং সারা ইউসুফ বৃষ্টি। ‘খ’ বিভাগে (১৯-৩৫ বছর) ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকার করেছে যথাক্রমে আরাফাত করিম, মেহেদি হক এবং আ... গোলামউল্লাহ্‌ নিশান। এছাড়া ২টি বিভাগ থেকে মোট ৫৩টি কার্টুনকে বিশেষ মনোনয়ন দেয়া হয়। উল্লেখ্য এ প্রতিযোগিতায় দুইটি বিভাগের বিজয়ী ও বিশেষভাবে মনোনীত সর্বোমোট ৫৯টি কার্টুন নিয়ে এ প্রদর্শনীর আয়োজন করা হয়েছে। আজ থেকে ১৬ ডিসেম্বর ২০১৩ পর্যন্ত প্রতিদিন দুপুর ১২টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত সর্বসাধারণের জন্য এ প্রদর্শনী উন্মুক্ত থাকবে। সারাবিশ্বের দর্শক টিআইবি’র ওয়েবসাইট (www.ti-bangladesh.org) ও ফেইসবুক (www.facebook.com/TIBangladesh) মাধ্যমে প্রদর্শনীটি উপভোগ করতে পারবেন।
এছাড়া টেলিযোগাযোগ মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় দুর্নীতিবিরোধী এক ক্ষুদে বার্তা ১০ কোটিরও বেশী মোবাইল ফোন গ্রাহকের কাছে পৌছানো হয়।

Media Contact