• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

TIB concerned about reported official decision to purchase rail engine bypassing procurement law (Bangla)

ক্রয় আইন উপেক্ষা করে রেল ইঞ্জিন ক্রয়ের সরকারি সিদ্ধান্তে উদ্বিগ্ন টিআইবি

আইনানুগ ও পরিপূর্ণভাবে উন্মুক্ত প্রতিযোগিতা নির্ভর ক্রয় প্রক্রিয়া অবলম্বনের দাবী

ঢাকা, ১০ ডিসেম্বর, ২০১২: ক্রয় আইন ও ক্রয়বিধি উপেক্ষা করে দৃশ্যত উদ্দেশ্যমূলকভাবে পূর্বনির্ধারিত একটিমাত্র কোম্পানীর কাছ থেকে রেল ইঞ্জিন ক্রয়ের সরকারি উদ্যোগে উদ্বেগ প্রকাশ করে এ ব্যপারে যথাযথ আইনানুগ প্রক্রিয়া অনুসরণের আহ্বান জানিয়েছে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)।

সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত এ সংক্রান্ত প্রতিবেদনের প্রেক্ষিতে এক বিবৃতিতে টিআইবির নির্বাহী পরিচালক ড. ইফতেখারুজ্জামান বলেন, ‘‘রেল ইঞ্জিন ক্রয়ে দরপত্রে উদ্দেশ্যমূলকভাবে আরোপিত শর্ত অনুযায়ী কেবলমাত্র একটি  কোম্পানীই এই দরপত্রে অংশ নিতে পারবে, যা সরকারি ক্রয় আইনের ধারা ১৫, ক্রয়বিধির উপধারা ২৯ ও আন্তর্জাতিক দরপত্রের বৈশিষ্ট্যের পরিপন্থী। এটি একদিকে যেমন সরকারি ক্রয় আইন অনুসরণে রেল মন্ত্রণালয়ের সরাসরি অবজ্ঞার দৃষ্টান্ত অন্যদিকে দৃশ্যত উদ্দেশ্যমূলকভাবে রেল খাতকে আধুনিকায়নের সুযোগ থেকে বঞ্চিত করা ও তার মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট কোন মহলের অবৈধ সুবিধা অর্জনের সুযোগ সৃষ্টির ইঙ্গিত বহন করছে।

ড. জামান বলেন, ‘‘উক্ত প্রতিবেদনে উল্লিখিত তথ্য অনুযায়ী এই মিটারগেজ ইঞ্জিনের মডেল অনেক পুরানো, জ্বালানী ব্যয় অত্যাধিক এবং দুই স্ট্রোকবিশিষ্ট হওয়ায় এটি পরিবেশ বান্ধবও নয়। উন্মুক্ত ও পরিপূর্ণ প্রতিযোগিতার মাধ্যমে ইঞ্জিন ক্রয়ের সুযোগ সৃষ্টি না করে শুধুমাত্র অতীত অভিজ্ঞতার  ভিত্তিতে পূর্ব নির্ধারিত একটি প্রতিষ্ঠান থেকে দুই স্ট্রোকবিশিষ্ট ইঞ্জিন ক্রয়ের সিদ্ধান্ত যুক্তিযুক্ত ও আইনসঙ্গত নয় বরং দূরভিসন্ধিমূলক।’’

বিবৃতিতে ড. জামান আরো বলেন, সাম্প্রতিক সময়ে রেলওয়েতে নিয়োগ বাণিজ্য সংক্রান্ত কেলেঙ্কারীর ঘটনায়  রেল খাত এমনিতেই নাজুক অবস্থায় পতিত হয়েছে। পাশাপাশি পদ্মাসেতু প্রকল্প, হলমার্ক, সোনালী ব্যাংক, ডেসটিনি, শেয়ারবাজার ইত্যাদির মত বড় ধরণের দুর্নীতির অভিযোগের প্রেক্ষিতে সরকার সার্বিকভাবে আস্থার সংকটের সম্মুখীন। এর মধ্যে রেল ইঞ্জিন ক্রয়ে সুপরিকল্পিতভাবে সরকারি ক্রয় বিধিমালা উপেক্ষা করার এই প্রয়াস সরকারের নির্বাচনী অঙ্গীকার ও জনস্বার্থ পরিপন্থী বলে বিবেচিত হবে।

অনতিবিলম্বে সরকারকে এই নিয়মবহির্ভুত উদ্যোগ থেকে সরে এসে সরকারি ক্রয় আইন ও ক্রয়বিধিমালা সম্পূর্ণরূপে অনুসরণ পূর্বক পরিপূর্ণ উন্মুক্ত প্রতিযোগিতা নিশ্চিত করে উন্নততর প্রযুক্তি নির্ভর রেল ইঞ্জিন ক্রয়ে সহায়ক প্রক্রিয়া অবলম্বনের দাবী জানিয়েছে টিআইবি।

Media Contact