• header_en
  • header_bn

সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), চট্টগ্রাম মহানগর - এর সদস্য প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম এর মৃত্যুতে আমরা গভীরভাবে শোকাহত

ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি)’র অনুপ্রেরণায় গঠিত সচেতন নাগরিক কমিটি (সনাক), চট্টগ্রাম মহানগর এর সদস্য প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম (জন্ম: ২৭ নভেম্বর ১৯৪৪) এর মৃত্যুতে টিআইবি পরিবার গভীরভাবে শোকাহত। তিনি কোভিড-১৯ আক্রান্ত হয়ে ১৫ মার্চ ২০২১ ভোর ০৩.০০টায় চট্টগ্রাম শহরের একটি বেসরকারি হাসপাতালে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম ২১ আগস্ট ২০১৬ হতে সনাক, চট্টগ্রাম মহানগর - এর সাথে সম্পৃক্ত হয়ে স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলন পরিচালনায় গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন।
বিশিষ্ট চিকিৎসক, শিক্ষাবিদ ও সংগঠক প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম ১৯৬১ সালে সিলেট সরকারি পাইলট উচ্চ বিদ্যালয় থেকে মেট্রিকুলেশন এবং ১৯৬৩ সালে কুমিল্লা ভিক্টোরিয়া কলেজ হতে এইচএসসি পাশ করেন। ১৯৬৪ সালে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে এমবিবিএস ১ম বর্ষে ভর্তি হন। ১৯৭০ সালে মেডিকেল কলেজে অধ্যয়নরত অবস্থায় রেডিও পাকিস্থান চট্টগ্রাম কেন্দ্রের অনুষ্ঠান ঘোষক ও সংবাদ পাঠক হিসেবে কাজ শুরু করেন। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজে ইন্টার্নী চিকিৎসক হিসেবে কর্মরত অবস্থায় ১৯৭১ সালে মহান মুক্তিযুদ্ধকালে তিনি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্র প্রতিষ্ঠায় অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন। তিনি স্বাধীন বাংলা বেতার কেন্দ্রের বিপ্লবী শব্দসৈনিক হিসেবে মহান মুক্তিযুদ্ধে অনন্য অবদান রাখেন। প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম ১৯৭৮ সালে নিপসম হতে প্রথম এমপিএইচ ডিগ্রি এবং পরবর্তীতে কেথলিক ইউনিভার্সিটি অব লিউভেন বেলজিয়াম হতে দ্বিতীয় এমপিএইচ ডিগ্রি লাভ করেন। পরবর্তীতে ১৯৯৪ সালে স্কটল্যান্ডের দুনদী বিশ^বিদ্যালয় হতে পিজিডি সম্পন্ন করেন। 
ডা. মো. সুলতান উল আলম চট্টগ্রামের মীরসরাই উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা হিসেবে কর্মজীবন শুরু করেন। পরবর্তীতে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন এবং একই কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ হিসেবে অবসর গ্রহণ করেন। অবসর পরবর্তী সময়ে তিনি ইনস্টিটিউট অব হেলথ টেকনোলজি, চট্টগ্রাম এর প্রতিষ্ঠাতা অধ্যক্ষ এবং বিজিসি ট্রাস্ট মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের অধ্যক্ষ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এছাড়া তিনি সাউদার্ন মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের কমিউনিটি মেডিসিন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান হিসাবেও দায়িত্ব পালন করেন। ডা. মো. সুলতান উল আলম বাংলাদেশ বেতার চট্টগ্রাম কেন্দ্রের সিনিয়র সংবাদ পাঠক ও অনুষ্ঠান ঘোষক হিসেবে দীর্ঘদিন কর্মরত ছিলেন। 
প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলম চট্টগ্রাম মহানগর এলাকায় চিকিৎসা শিক্ষার প্রসার ও বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রতিষ্ঠাসহ   সমাজের নানা ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রেখেছেন। তিনি বিভিন্ন সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংগঠনের সাথেও যুক্ত ছিলেন। মৃত্যুকালে তিনি স্ত্রী, তিন কন্যা ও এক ছেলেসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। 
দুর্নীতিবিরোধী সামাজিক আন্দোলনে প্রফেসর ডা. মো. সুলতান উল আলমের অবদান আমাদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হিসেবে কাজ করবে। টিআইবি’র সাধারণ পর্ষদ, ট্রাস্টি বোর্ড, সকল কর্মী, দেশের ৪৫টি এলাকার সনাক, স্বজন, ইয়েস, ইয়েস ফ্রেন্ডস, ঢাকা ইয়েস, ওয়াইপ্যাক এর সদস্যসহ সকলের পক্ষ থেকে আমরা তাঁর বিদেহী আত্মার শান্তি কামনা করছি এবং শোক-সন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করছি।