• header_en
  • header_bn

 

Corruption increases poverty and injustice. Let's fight it together...now

 

Studies by year


  • Research & Policy

    • Good Governance in RMG Sector: Progress and Challenges

      তৈরি পোশাক খাত বাংলাদেশের প্রধান বৈদেশিক মুদ্রা অর্জনকারী শিল্প খাত যার অবদান মোট দেশজ রপ্তানির ৮৩.৫১% (২০১৭-২০১৮ অর্থ বছরে মোট ৩০,৬১০ মিলিয়ন ডলার) এবং জিডিপিতে এ খাতের অবদান প্রায় ১১.১৭%। এটি একটি শ্রমঘন প্রাতিষ্ঠানিক খাত এবং এ খাতে কর্মরত শ্রমিক ৪.৪ মিলিয়ন। এ খাতে কর্মরত শ্রমিকের মধ্যে নারী শ্রমিকের হার ৬০% (তবে এটি ক্রমান্বয়ে কমছে, ২০১৩ সালে সর্বোচ্চ ৮০%, ২০১৬ সালে ৬৪% এবং ২০১৮ সালে দাঁড়িয়েছে ৬০%) এবং দেশের মোট কর্মরত নারী শ্রমিকের ৬৪% তৈরি পোশাক খাতে নিয়োজিত। টিআইবি কর্তৃক ২০১৩ সালে পরিচালিত গবেষণায় রানা প্লাজা দুর্ঘটনা তৈরি পোশাক খাতে সুশাসনের ঘাটতি ও দুর্নীতির দৃশ্যমান উদাহরণ বলে উল্লেখ করা হয়েছে। গবেষণাটির মাধ্যমে সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন অংশীজনের কার্যক্রমে আইনের শাসন, প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা, অভিযোগ ব্যবস্থাপনা, স্বচ্ছতা, কারখানা নিরাপত্তা, শ্রমিক নিরাপত্তা ও শ্রমিক অধিকার বিষয়ে বিভিন্ন সুশাসনের ঘাটতি চিহ্নিত করা হয়েছে। রানা প্লাজা দুর্ঘটনা পরবর্তী এ খাতের বিদ্যমান সুশাসনের ঘাটতি এবং তা থেকে উত্তরণে টিআইবি প্রদত্ত সুপারিশের প্রেক্ষিতে সরকার ও বিভিন্ন অংশীজনের গৃহীত পদক্ষেপ...

    • Dhaka WASA: Governance Challenges and Way forward

      বিশুদ্ধ পানি ও পয়নিষ্কাশন ব্যবস্থা জনস্বাস্থ্য রক্ষা ও উন্নয়নের জন্য অপরিহার্য বিষয় হিসেবে বিবেচিত। বিশুদ্ধ পানির প্রাপ্যতা একটি মৌল মানবাধিকার (জাতীয় পানি নীতি, ১৯৯৯)। পানি মানুষের বেঁচে থাকা, গৃহস্থালী থেকে শুরু করে কলকারখানায় উৎপাদন এবং টেকসই পরিবেশের জন্য অপরিহার্য উপাদান হিসেবে কাজ করে। সুপেয় এবং পরিচ্ছন্নতা ও পয়নিষ্কাশনের জন্য ব্যবহার্য পানির অধিকারকে সর্বাধিকার হিসেবে বিবেচনার নির্দেশনা রয়েছে (জাতীয় পানি আইন, ২০১৩)। মানুষের প্রয়োজন অনুযায়ী পানির নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়টি পানি ব্যবস্থাপনায় স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতার সাথে জড়িত। স্বচ্ছতা, জবাবদিহিতা এবং সর্বস্তরের মানুষ ও প্রতিষ্ঠানের মতামতের ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ পানি খাতে শুদ্ধাচারের তিনটি মূল স্তম্ভ। এসব স্তম্ভ কতগুলো মূলনীতি যেমন- সততা, সমতা ও টেকসই কর্মকান্ডের  ওপর নির্ভরশীল (রহমান ও ইসলাম, ২০১৪)। জাতিসংঘ টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট ৬ ও বাংলাদেশের সপ্তম পঞ্চবার্ষিকী পরিকল্পনায় সকলের জন্য পানি ও পয়নিষ্কাশনের টেকসই ব্যবস্থাপনা ও প্রাপ্যতা নিশ্চিত করার তাগিদ দেওয়া হয়েছে।  বিস্তারিত জানতে নিচে ক্লিক করুন মূল প্রতিবেদন (বাংলা) ...

    • Policy Brief on Primary Education

      দেশের প্রাথমিক শিক্ষাকে সার্বজনীন, অবৈতনিক ও বাধ্যতামূলক করার লক্ষ্যে সরকার শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি প্রদান, বেসরকারি রেজিস্টার্ড প্রাথমিক বিদ্যালয়কে সরকারিকরণ, সুবিধা-বঞ্চিত, স্কুল-বহির্ভূত, ঝরে পড়া এবং শহরের কর্মজীবী দরিদ্র শিশুদের প্রাথমিক শিক্ষার আওতায় আনার জন্য প্রকল্প গ্রহণ, উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা নীতির খসড়া ও শিক্ষা আইন, ২০১৩ সহ বিভিন্ন উদ্যোগ ও কার্যক্রম পরিচালনা করছে। ইতিমধ্যেই প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে শিশু ভর্তি ও প্রাথমিক শিক্ষা চক্র সমাপনীর হার বৃদ্ধি, ঝরে পড়ার হার হ্রাস, ছেলে-মেয়ের সংখ্যাসাম্য বৃদ্ধি, নারী শিক্ষক নিয়োগের হার বৃদ্ধি, সর্বজনীন সমাপনী পরীক্ষা প্রচলন, তথ্য-প্রযুক্তির সন্নিবেশ, সঠিক সময়ে বই প্রাপ্তি বিভিন্ন অগ্রগতি লক্ষণীয়। প্রাথমিক শিক্ষাখাতে গৃহীত এ সকল অগ্রগতি থাকলেও এ খাতে সুশাসনের ক্ষেত্রে নানাবিধ ঘাটতি এবং তার ফলে বহুমাত্রিক দুর্নীতি বিদ্যমান থাকায় অনেক ক্ষেত্রেই প্রাথমিক শিক্ষা ব্যহত হচ্ছে। ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) পরিচালিত প্রাথমিক শিক্ষা ক্ষেত্রে বিভিন্ন গবেষণা ও অধিপরামর্শ সভায় প্রাথমিক শিক্ষা খাতে বিরাজমান বিভিন্ন চ্যালেঞ্জ...

    • Indigenous and Dalit Peoples of Bangladesh: Challenges and Way Forward for Inclusion in Rights and Services

      A situation of inequality, discrimination, exclusion, and deprivation prevails in Bangladesh, in their diverse forms, which impacts on a significant portion of population due to their historical identities and marginalised positions in society (Roy, 2002; Shafie & Kilby, 2003; Goswami, 2004; Dyrhagen & Islam, 2006; Foley & Chowdhury, 2007; Ahsan & Burnip, 2007; Sarker & Davey, 2007; Nasreen & Tate, 2007; Bal, 2007; Zohir et al, 2008; Ali, 2013; Ali, 2014; MJF, 2016). This has remained as a bewildering scenario, although the Constitution of Bangladesh guarantees some concrete directives to establish social and economic justice in every spheres of society. The directives provide that all citizens are equal before law and are entitled to equal protection of law (Article 27); state shall endeavour to ensure equality of opportunity to all citizens (Article 19.1); state shall adopt effective measures to remove social and economic inequality and to ensure the equitable distribution of wealth...

    • সাভার উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কার্যালয়: সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়

      শিক্ষা মানুষের একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ মৌলিক অধিকার। আর প্রাথমিক ও গণশিক্ষা হলো শিক্ষা ব্যবস্থার মূল স্তম্ভ। এখান থেকেই পরবর্তী শিক্ষার ভিত রচিত হয়। সরকার প্রাথমিক শিক্ষার গুরুত্বকে বিবেচনায় নিয়ে ১৯৮০ সালে দেশে অবৈতনিক সর্বজনীন প্রাথমিক শিক্ষা ব্যবস্থা চালু করেছে। এরই ধারাবাহিকতায় ১৯৯৩ সাল থেকে পাঁচ বছর মেয়াদি বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা প্রবর্তন করা হয়। প্রাথমিক শিক্ষায় সকল শিশুর ভর্তি নিশ্চিতকরণ ও গুণগত মান উন্নয়নে সরকার বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন করছে। এসব কর্মসূচির মধ্যে রয়েছে- বেসরকারি বিদ্যালয় জাতীয়করণ ও অবকাঠামো উন্নয়ন, বিদ্যালয় গমনোপযোগী শতভাগ শিশু ভর্তি নিশ্চিতকরণ, সকল শিক্ষার্থীর হাতে বছরের শুরুতে বিনামূল্যে পাঠ্যবই পৌঁছে দেওয়া, শতভাগ শিক্ষার্থীকে উপবৃত্তির আওতায় আনা, প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা চালুকরণ, ইত্যাদি। জাতিসংঘ ঘোষিত টেকসই উন্নয়ন অভীষ্ট  ৪ - এ (‘সাসটেইনেবল ডেভেলপমেন্ট গোল’ বা সংক্ষেপে এসডিজি) সকলের জন্য অন্তর্ভুক্তিমূলক ও সমতাভিত্তিক গুণগত শিক্ষা নিশ্চিতকরণ এবং জীবনব্যাপী শিক্ষালাভের সুযোগ সৃষ্টির বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে। উক্ত অভীষ্টের ৪.১ ও ৪.২ এ ২০৩০ সালের মধ্যে সকল...

    • Policy brief on Recruitment of Lecturers in Public Universities: Governance Challenges and Ways Forward

      সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষক নিয়োগে সচ্ছতা ও জবাবদিহিতা তথা সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সহায়ক ভূমিকা পালনের লক্ষ্যে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) ‘সরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রভাষক নিয়োগ: সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়’ শীর্ষক একটি গবেষণা কার্যক্রম সম্পন্ন করে। ২০১৬ সালের ১৮ ডিসেম্বর প্রকাশিত উক্ত গর্বেষণায় প্রাপ্ত ফলাফলের ভিত্তিতে বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক নিয়োগে সুশাসন প্রতিষ্ঠায় সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিবেচনার জন্য এই পলিসি ব্রিফটি উপস্থাপন করা হল। পলিসি ব্রিফের জন্য এখানে ক্লিক করুন।  

    • Policy brief on Private University: Governance Challenges and Way Forward

      দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ পরিচালনায় অনিয়ম ও দুর্নীতি সম্পর্কে দীর্ঘদিন ধরে পত্র-পত্রিকাসহ গণমাধ্যমে অনেক প্রতিবেদন প্রকাশিত হয়েছে, কিন্তু বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের সুশাসনের চ্যালেঞ্জ সম্পর্কে কাঠামোবদ্ধ গবেষণার অভাব ছিলো। এই প্রেক্ষিতে টিআইবি “বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়: সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়” শীর্ষক একটি গবেষণা পরিচালনা করে যা ৩০ জুন, ২০১৪ সালে একটি সাংবাদিক সম্মেলনের মধ্য দিয়ে প্রকাশ করা হয় । গবেষণায় প্রাপ্ত ফলাফল বিশ্লেষণ করে টিআইবি একটি সুপারিশমালা প্রদান করে এবং বিভিন্ন সময় এ বিষয়ে এডভোকেসি কার্যক্রম পরিচালনা করে। পরবর্তীতে ধারাবাহিক পর্যবেক্ষণে দেখা যায় যে দেশের বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়সমূহের উন্নয়নের জন্য বিভিন্ন ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয়েছে যেগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো সুশাসন প্রতিষ্ঠার লক্ষ্যে আইনি সংস্কার; অননুমোদিত প্রোগ্রাম/কোর্সে শিক্ষার্থী ভর্তি বন্ধ করার নির্দেশ; সকল আউটার ক্যম্পাস বন্ধ করার নির্দেশ; দীর্ঘসূত্রতা নিরসনে সব মামলা একই বেঞ্চে আনার উদ্যোগ; অনুমোদন প্রাপ্তির ৫ বছর অতিক্রান্ত সকল বেসরকারী বিশ্ববিদ্যালয়কে স্থায়ী ক্যাম্পাসে যাওয়ার জন্য...

    • পলিসি ব্রিফ: হাওরে বাঁধ নির্মাণে সুশাসনের লক্ষ্যে সুপারিশ

      হাওরের সকল অর্থনৈতিক কর্মকান্ড কৃষি নির্ভর। হাওর অঞ্চলের মানুষ প্রধানত বোরো ধানের উপর নির্ভর করে জীবিকা নির্বাহ করে। তবে প্রাকৃতিক দুর্যোগের (বিশেষ করে পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট অকাল বন্যা) কারণে দরিদ্র জনগণ কোনো কোনো বছর এ ফসল ঘরে তুলতে পারে না। এ ধরনের অকাল বন্যায় যাতে কৃষকের ফসল হানি না হয় তার জন্য সরকার পানি উন্নয়ন বোর্ড (পাউবো) এর মাধ্যমে হাওর এলাকায় ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণ ও পুরাতন বাঁধ সংস্কার করে থাকে। সুনামগঞ্জ হাওর অঞ্চলের বোরো ফসল রক্ষার্থে ২০১৬-১৭ অর্থ বছরে সুনামগঞ্জ পাউবো জেলার ১৩১ টি হাওরের জন্য প্রায় ৬৯ কোটি টাকা ব্যয়ে বাঁধ নির্মাণ ও মেরামতের কাজ করে। বাঁধ নির্মাণ ও মেরামতের জন্য টেন্ডার ও পিআইসি (প্রকল্প বাস্তবায়ন কমিটি) পদ্ধতির মাধ্যমে এ প্রকল্পগুলো বাস্তবায়ন করা হয়। ২০১৭ সালের মার্চ-এপ্রিল মাসে ভারি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলে ফসল রক্ষা বাঁধ ভেঙ্গে হাওরের দুই লাখ ২৩ হাজার ৮৫০ হেক্টর জমির প্রায় ৮২ শতাংশ থেকে ৯০ শতাংশ বোরো ধান ক্ষতিগ্রস্ত হয়।  গত ২০১৭-১৮ অর্থ বছর থেকে হাওরে ফসল রক্ষা বাঁধ নির্মাণে টেন্ডার পদ্ধতির পরিবর্তে পিআইসি পদ্ধতি অনুসরণ করা হয়, যা এ বছরও অব্যাহত আছে। ২০১৮-১৯...

    • Policy Brief on Drug Administration

      সরকারের সহায়ক শক্তি হিসেবে ট্রান্সপারেন্সি ইন্টারন্যাশনাল বাংলাদেশ (টিআইবি) স্থানীয় ও জাতীয় পর্যায়ে গুরুত্বপূর্ণ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিষয়ের ওপর সুশাসন সহায়ক গবেষণা ও অ্যাডভোকেসি কার্যক্রম পরিচালনা করে থাকে। এরই অংশ হিসেবে ওষুধ খাতের প্রশাসনিক ও তদারকি ব্যবস্থাকে অধিকতর উন্নত, টেকসই, দক্ষ ও কার্যকর করার লক্ষ্যে ২০১৫ সালের ১৫ জানুয়ারি “ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরে সুশাসন: চ্যালেঞ্জ ও উত্তরণের উপায়” শীর্ষক একটি গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশ করে। এ গবেষণা প্রতিবেদন প্রকাশের পর নকল ও ভেজাল ওষুধ প্রতিরোধে বিভিন্ন সময়ে অভিযান জোরদারকরণের পাশাপাশি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সেবা কার্যক্রমে কিছু ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করা হয় যেগুলো অনেকক্ষেত্রেই ২০১৫ সালের উল্লিখিত গবেষণা প্রতিবেদনের সুপারিশমালার সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ। তবে এ সকল উদ্যোগ সত্ত্বেও ওষুধ নিয়ন্ত্রণ ও তদারকিতে সুশাসনের ঘাটতি এখনও লক্ষণীয়। উল্লিখিত গবেষণার প্রাপ্ত ফলাফল এবং বর্তমান বাস্তবতার পরিপ্রেক্ষিতে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তরের প্রশাসনিক ও তদারকি ব্যবস্থাকে উন্নত এবং দুর্নীতি ও অনিয়মরোধে এ সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের বিবেচনার জন্য এই পলিসি ব্রিফ উপস্থাপন...

    • Policy Brief on Safer Road and Well-governed Road Transportation

      সড়ক পরিবহন খাত দেশের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নে অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ ভিত্তি। এই খাতের শৃঙ্খলা ও জনস্বার্থ নিশ্চিত করা একান্ত প্রয়োজন। ২০০৯ সালে পরিচালিত টিআইবি’র ‘বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন ব্যবস্থায় বিআরটিএ ও স্টেকহোল্ডারদের ভূমিকা: সমস্যা ও প্রতিকারের উপায়’ শীর্ষক গবেষণায় বিআরটিএসহ সড়ক পরিবহন সংশ্লিষ্ট প্রতিষ্ঠানসমূহের আইনি ও প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা, শুদ্ধাচার চর্চা ও কার্যকর জবাবদিহিতায় ঘাটতির চিত্র উঠে আসে। নিরাপদ সড়কসহ সড়ক পরিবহন খাতে জবাবদিহি, আইনের শাসন ও ন্যায়বিচারের দাবিতে ২০১৮ সালের জুলাই মাসের শেষ ও আগস্ট মাসের প্রথম সপ্তাহে শিশু ও তরুণ শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের প্রেক্ষিতে সড়ক নিরাপত্তা ও এ খাতে সুশাসনের চ্যালেঞ্জ ব্যাপক উৎকণ্ঠা ও আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে স্থান পায়। এ প্রেক্ষিতে মন্ত্রিসভা ‘সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮’ এর খসড়া অনুমোদন করে এবং পরবর্তীতে তা দ্রুততার সাথে জাতীয় সংসদে পাশ করে গেজেট আকারে প্রকাশ করা হয়। সরকারের এই উদ্যোগকে আমরা সাধুবাদ জানাই। তবে আইনটিতে যেসব বিষয় অনুপস্থিত বা অস্পষ্ট থেকে গেছে তা সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ-পূর্বক অচিরে একটি বিধিমালা প্রণয়ন করা প্রয়োজন। তবে সুদীর্ঘকাল...

    << < 1 2 3 4 5 6 7 8 9 10 11 12 13 14 15 16 17 18 19 20 21 22 23 24 25 26 27 28 29 30 31 32 33 34 35 36 37 38 39 40 > >> (54)